ফাইনাল সেমিস্টার পরীক্ষা হবে না।

আজ নতুন করে জানা গেল ফাইনাল সেমিস্টার পরীক্ষা হবে না।সব অনলাইনে হবে বাড়ি বসে।সেক্ষেত্রে নম্বর বিভাজন হবে কি করে।

বেনাগাদ করোনা পরিস্থিতি আর অবস্থায় স্কুল এবং কলেজের কোনো ফাইনাল সেমিস্টার পরীক্ষা হবে না।

যেটা ভাবা হচ্ছে যে জুলাইয়ের মধ্যে হয়তো বিকল্প মুল্যায়ণের ব্যবস্থা করা হবে,ঠিক কি কি করা হবে রাজ্যের তরফ থেকে।

ক্রম বর্তমান দেশের অবস্থা বেহাল থাকাতে কি করে হবে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা।

পার্ঠ চট্রোপাধ্যায় শিক্ষামন্ত্রী
তিনি বলেন এ সিদ্ধান্তের ফলে কি ছাত্র ছাত্রীদের সুবিধা হবে।এটা থেকে কি তাদের সুফল বয়ে আনবে।তাদের কি কোনো উপকারে আসবে এ সিদ্ধান্ত।

সাধারনত ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে প্রকাশ করা হয় ফাইনাল পরীক্ষার ফল।এর সাথে উচ্চতর শিক্ষা গবেষনায় চাকরির সরাসরি যোগ।

পরিস্থিতির গুরুত্ব বিচার করে বিষয়টি নিয়ে রফা সূত্রে পৌছাতে চান শিক্ষা দপ্তর।প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তর বলেন রাজ্যের কোনো কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফাইনাল সেমিস্টার পরীক্ষা হবে না।

আগের সেমিস্টারে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তি ৫০%।বাকি ৫০%এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয় গুলি ঠিক করবে কারা কিভাবে নেবে।

এক্ষেত্রে ৪টি অপশন রাখা হয়েছে।
অনলাইন পরীক্ষা,
মৌখিক
প্রজেক্টর ওর্য়াক এবং
আ্যসাইনমেন্ট

শনিবার সকালে সব উপচার্যদের নিয়ে বৈঠকে বসে শিক্ষা অধিদপ্তর।

এভাবে চলছে শিক্ষা অধিদপ্তর এবং ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলন।কি হবে শেষ পর্যন্ত ফাইনাল সেমিস্টার পরীক্ষার।

এখোনো পর্যন্ত গবেষনায় আছেন শিক্ষা দপ্তর শিক্ষামন্ত্রী।

18 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here